ঢাকা, সোমবার ২৭ মে ২০২৪, ০৪:০১ পূর্বাহ্ন
বিতর্কিতদের মনোনয়নে তৃণমূলে ক্ষোভ
উখিয়া নিউজ ডেস্ক :

সারা দেশে ৮৪৮ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন আগামী ১১ নভেম্বর। নির্বাচন উপলক্ষ্যে আওয়ামী লীগে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করার কাজ চলছে। ইতোমধ্যে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগে মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হয়েছে। কিন্তু মনোনয়নপ্রাপ্তদের মধ্যে বিতর্কিতরাও স্থান পাচ্ছে।

এতে বিভিন্ন স্থানে তৃণমূল আওয়ামী লীগে ক্ষোভ দেখা গেছে। বগুড়ায় ২০ ইউপি নির্বাচনে বিতর্কিতদের অনেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ায় নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া সোনাতলা পৌরসভার মেয়র পদে রাজাকারপুত্রের মনোনয়ন বাতিলের দাবি উঠেছে।

নাটোরের বড়াইগ্রামে চান্দাই ইউপি নির্বাচনে পরিবর্তনের দাবিতে সড়ক অবরোধ করেছে নেতাকর্মীরা। সিরাজগঞ্জে মনোনয়নবঞ্চিত নেতার অনুসারীরা বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে।

পিরোজপুরের নাজিরপুরে ইউপি চেয়ারম্যান পদের দলীয় মনোনয়নের জন্য কেন্দ্রে পাঠানো তালিকায় স্বাক্ষর জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে। ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

বগুড়া : প্রথম দফায় বগুড়ার দুটি উপজেলার ২০ ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে রয়েছে শিবগঞ্জ উপজেলার ১১টি ও শেরপুর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন। ৭ অক্টোবর আওয়ামী লীগ চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন চূড়ান্ত করেছে। কিন্তু মনোনয়নপ্রাপ্তদের কেউ জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত, কারও বিরুদ্ধে হত্যা মামলা, কেউ মানবিক সহায়তার অর্থ আত্মসাৎকারী। আবার কারও বিরুদ্ধে সরকারি গাছ কাটা, মাদক ব্যবসা, বিরোধী দলের সঙ্গে ব্যবসা করাসহ নানা অভিযোগ রয়েছে। এতে তৃণমূল নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ ও হতাশার সৃষ্টি হয়েছে। শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজার রহমান মোস্তা জানান, অভিযোগগুলো সত্য। তবে তৃণমূল থেকে তিনজন করে প্রার্থীর তালিকা কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছিল। ওই তালিকা থেকেই চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। শেরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুস সাত্তার জানান, প্রার্থীদের অতীত রেকর্ড দেখেই বাছাই করা হয়েছে। এছাড়া সোনাতলা পৌরসভার মেয়র পদে মনোনয়ন পাওয়া শহিদুল বারী খান রব্বানীর বিরুদ্ধে রাজাকারপুত্রের অভিযোগ তুলে মনোনয়ন বাতিলের দাবি উঠেছে। শহরের স্টেশন রোডে আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সোনাতলা উপজেলা শাখার উদ্যোগে শনিবার মানববন্ধন কর্মসূচি হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *