ঢাকা, বুধবার ১৯ জুন ২০২৪, ০৫:০০ অপরাহ্ন
রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন, ৫ শতাধিক স্থাপনা ছাই
উখিয়া নিউজ ডেস্ক :

কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা শিবিরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। দেড় ঘণ্টার আগুনে পুড়েছে দোকানঘর, মসজিদ, টয়লেট, এনজিও অফিসসহ ৫ শতাধিক স্থাপনা।

শুক্রবার (২৪ মে) বেলা ১১ টার দিকে উখিয়ার থাইংখালি ১৩ নম্বর তানজিমারখোলা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন লাগে। বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। অগ্নিকাণ্ডের কারণে আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছে প্রায় আড়াই হাজারের মতো রোহিঙ্গা।

ক্যাম্প সূত্রে জানা গেছে, থাইংখালি ১৩ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এনজিও সংস্থা কারিতাস অফিসের কাছ থেকে হঠাৎ আগুনের সূত্রপাত হয়। তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে আগুন দ্রুত ক্যাম্পের কাঁঠাল গাছতলা বাজারসহ ক্যাম্পের ঘরে-ঘরে ছড়িয়ে পড়ে।

এতে সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে ২০০টি বাঁশের ঘর, আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ২২০টি গরু ঘর, দোকান পুড়েছে ২৫টি, টয়লেট পুড়েছে ৪৫টি। তাছাড়া কারিতাস অফিস, মসজিদ, সিএফএস: কমিউনিটি সেফ স্পেস, ৮টি টেপ স্ট্যান্ড ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

কক্সবাজারের ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক অতীশ চাকমা জানান, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন লাগার খবর পেয়ে প্রথমে দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। সঙ্গে যোগদেন এপিবিএন সদস্য ও স্থানীয় রোহিঙ্গারা। পরে আরও দুটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে যায়।

তিনি আরও বলেন, সব ইউনিট ও ক্যাম্প সংশ্লিষ্টরা সমন্বিত দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়েছে। তবে কোন স্থান থেকে আগুনের সূত্রপাত তা সঠিকভাবে বলা যাচ্ছে না। অগ্নিকাণ্ডে সম্পূর্ণ ও আংশিক মিলিয়ে ৫ শতাধিক স্থাপনা পুড়ে গেছে। সব মিলিয়ে কয়েক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *