ঢাকা, রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৩০ পূর্বাহ্ন
রোহিঙ্গা ক্যাম্পে মাদক ও অস্ত্র বাণিজ্য বন্ধে প্রয়োজনে গুলি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী
উখিয়া নিউজ ডেস্ক :

কক্সবাজারের বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে মাদক ও অস্ত্র বাণিজ্য বন্ধে প্রয়োজনে গুলি ছুঁড়তে হবে বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। আজ শুক্রবার দুপুরে সিলেটে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন ও জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত স্বাস্থ্যবিষয়ক আলোচনা সভা শেষে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অব্যাহত এসব সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ভেতরে ও বাইরে যাতে আইনশৃঙ্খলা আরও উন্নত করা যায় সে বিষয় নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার একটা সভা হয়েছে। এরপরও আজকে এত বড় দুর্ঘটনা ঘটে গেল। ব্রাশফায়ার করে সাতজনকে হত্যা করা হলো, এটা খুবই আতঙ্কের বিষয়।’

আব্দুল মোমেন বলেন, ‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ঠেকাতেই ক্যাম্পে একের পর এক হত্যাকাণ্ড ঘটানো হচ্ছে। অনেকেই মিয়ানমারে আর ফেরত যেতে চায় না। তাদের স্বার্থে আঘাত লাগে। তারাই হয়তো রোহিঙ্গা ক্যাম্পে একের পর এক হত্যাকাণ্ড ঘটাচ্ছে। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখব।’

এদিকে, তিস্তার পানি হুট করে বাংলাদেশে ছেড়ে দেওয়া প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এ বিষয়ে আমাদের স্বরাষ্ট্রসচিব ভারতীয় হাইকমিশনের সঙ্গে আলাপ করবেন। পানির বিষয়টি ভারত আগে আমাদেরকে জানিয়েছিল কিনা, আমি জানি না। তবে একাধিক বিষয় নিয়ে হাইকমিশনারের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা হবে। আমাদের দুই দেশের মধ্যে রাজনৈতিক, সরকারি সম্পর্ক খুবই দৃঢ়।’

প্রসঙ্গত, কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে একটি মাদ্রাসায় আজ ভোরে গুলি করে সাতজনকে হত্যা করা হয়েছে। নিহতরা সবাই ওই ক্যাম্পের এইচ-৫২ ব্লকের দারুল উলুম নাদওয়াতুল ওলামা আল-ইসলামিয়াহ মাদরাসার শিক্ষক, ছাত্র বা ভলান্টিয়ার।

এর আগে গত ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে কুতুপালং-১ (ইস্ট) লম্বাশিয়া ক্যাম্পের ডি-৮ ব্লকে আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস নামের একটি সংগঠনের চেয়ারম্যান মুহিবুল্লাহকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *