ঢাকা, সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:২৮ অপরাহ্ন
ভোটার তালিকায় নাম নেই তিনবারের চেয়ারম্যানের
ডেস্ক রিপোর্ট ::

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার ১১ নং মরিচা ইউনিয়নের তিনবারের নির্বাচিত সাবেক চেয়ারম্যান দেবেশ চন্দ্র রায়ের ভোটার তালিকায় নাম নেই। আগামী ২৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনে প্রার্থী হতে তিনি ভোটার তালিকা সংগ্রহ করে এটি দেখতে পান। এ ঘটনায় হতভম্ব হয়ে পড়েন সাবেক এই চেয়ারম্যান।

দেবেশ চন্দ্র রায় মরিচা ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের মহাদেবপুর গ্রামের ধনঞ্জয় রায়ের ছেলে। তিনি বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। বিষয়টি জানার পর তার সমর্থকসহ এলাকার ভোটাররা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান।

জানা গেছে, ১৯৮৭, ১৯৯১ ও ২০০২ সালে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনবার চেয়ারম্যানের নির্বাচিত হন দেবেশ চন্দ্র রায়। ২০১৬ সালে স্বতন্ত্র নির্বাচন করে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর কাছে পরাজিত হন। সর্বশেষ উপজেলা পরিষদ ও জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি ভোট দেন। চতুর্থ ধাপে ইউপি নির্বাচন করার জন্য গত ১৬ নভেম্বর উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে গিয়ে তিনি ভোটার তালিকা সংগ্রহ করেন। পরে দেখেন তালিকায় তার নাম নেই।

বিষয়টি নির্বাচন অফিসে জানালে তার জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর দিয়ে অনুসন্ধান করলে দেখা যায়, তার ভোটার স্বত্ব বীরগঞ্জ উপজেলার মরিচা ইউনিয়নের পরিবর্তে ফুলবাড়ী উপজেলার ৭ নং শিবনগর ইউনিয়নের মহেশপুর গ্রামে স্থানান্তর করা আছে।

এ নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করে দেবেশ চন্দ্র রায় বলেন, আমার জনপ্রিয়তায় বিরোধী পক্ষ আমাকে নির্বাচন থেকে সরিয়ে দিতেই আমার অজ্ঞাতে জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। এটি পুরোপুরি অন্যায়। আমি বংশানুক্রমে বীরগঞ্জ উপজেলার ১১ নং মরিচা ইউনিয়নের বাসিন্দা। তা ছাড়া আমি তিনবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান। আমি ফুলবাড়ীতে ভোটার হতে যাব কোন দুঃখে?

মরিচা ইউনিয়নের ভোটার মৃত জীবন কৃষ্ণ দাশের ছেলে রতন জানান, বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক, এতে এলাকাবাসীর মনে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। আমরা ঘটনাটির সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করছি।

দিনাজপুর সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. শাহিনুর ইসলাম প্রামাণিক জানান, তিনি নির্বাচন অফিসে মনোনয়ন ফরম নিতে এলে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর অনুযায়ী তার নাম ফুলবাড়ী উপজেলার ৭ নং শিবনগর ইউনিয়নের ভোটার তালিকায় দেখতে পাই। তার ভোটার স্থানান্তরের আবেদনপত্রে সব কাগজপত্র জমা আছে। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তা সংশোধনের জন্য তাৎক্ষণিক নির্বাচন কমিশনার বরাবর পাঠানো হয়েছে। আজকালের মধ্যে এটি সংশোধন করা যাবে বলে আশা করছি।

উল্লেখ্য, চতুর্থ ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দিনাজপুর বীরগঞ্জ উপজেলায় ১১টি ইউনিয়নের মধ্যে ৯টি ইউনিয়নে আগামী ২৩ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ইউনিয়ন গুলো হচ্ছে শিবরামপুর, পলাশবাড়ী, শতগ্রাম, পাল্টাপুর, সুজালপুর, মোহাম্মদপুর, সাতোর, মোহনপুর ও মরিচা ইউনিয়ন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *