ঢাকা, রবিবার ০৩ মার্চ ২০২৪, ০২:০৮ পূর্বাহ্ন
‘ভাইরাল’ হওয়া সার্কেল এএসপি জুয়েলকে বদলি, মিশ্র প্রতিক্রিয়া
ডেস্ক রিপোর্ট ::

কুমিল্লায় আলোচিত ও ভাইরাল হওয়া সহকারী পুলিশ সুপার (দাউদকান্দি সার্কেল) জুয়েল রানাকে সিলেটের সপ্তম এপিবিএনে বদলি করা হয়েছে। রোববার পুলিশ সদর দফতরের এক প্রজ্ঞাপনে তাকে সিলেট এপিবিএনে বদলি করা হয়।

দক্ষ করিৎকর্মা সহকারী পুলিশ সুপারের বদলির খবর ফেসবুকে ভাইরাল হলে নেটিজেনদের মিশ্র প্রতিক্রিয়ার ঝড় ওঠে। সহকারী পুলিশ সুপার জুয়েল রানা কুমিল্লার দাউদকান্দি এবং চান্দিনা সার্কেলের দায়িত্বে ছিলেন।

জানা যায়, সদ্যসমাপ্ত দাউদকান্দি এবং মেঘনা উপজেলার ইউপি নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ করার লক্ষ্যে প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করেছেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জুয়েল রানা। অনৈতিক প্রভাব বিস্তার এবং সুষ্ঠু নির্বাচনের ক্ষেত্রে অন্তরায় দূর করতে তিনি বেশ প্রশংসিত ভূমিকা পালন করেন। তার বেশ কিছু বক্তব্য ফেসবুক এবং ইউটিউবে ভাসছে।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে চৌদ্দগ্রাম উপজেলার ইউপি নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয়। সেখানে প্রার্থীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে জোরালো বক্তব্য প্রদান করেন। এতে তিনি এমপি-মন্ত্রীসহ কারও কোনো তদবির কিংবা সুপারিশ শুনবেন না বলে প্রার্থীদের জানিয়ে দেন।

ওই মতবিনিময় সভায় তার বজ্রকণ্ঠের বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। সহকারী পুলিশ সুপার জুয়েল রানার ওই বক্তব্যে ফেসবুকে তুমুল ঝড় ওঠে। শুরু হয় মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

এদিকে ভার্চুয়াল জগতে ভাইরাল হওয়া পুলিশ কর্মকর্তাকে সিলেট বদলির খবরে ফেসবুকে নেটিজেনরা নেতিবাচক সমালোচনা করেন।

উল্লেখ্য, পুলিশে এই প্রথম অভিন্ন মানদণ্ডে পুরস্কার প্রদান শুরু হয়েছে। সেই মানদণ্ডে চট্টগ্রাম রেঞ্জের ১১ জেলার ৫০ জন সার্কেল অফিসারের মধ্যে দ্বিতীয় শ্রেষ্ঠ সার্কেল অফিসার নির্বাচিত হন কুমিল্লার দাউদকান্দি সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জুয়েল রানা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *