ঢাকা, বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪, ০৩:৫৫ অপরাহ্ন
প্রধানমন্ত্রীর পদক্ষেপে আপ্লুত আসপিয়া
ডেস্ক রিপোর্ট ::

বরিশাল জেলা পুলিশে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদে নিয়োগ পরীক্ষায় মেধা তালিকায় পঞ্চম হন আসপিয়া ইসলাম কাজল। তবে আবেদনে স্থায়ী ঠিকানা ভুল উল্লেখ থাকায় তার নিয়োগ নিয়ে জটিলতা দেখা দেয়। এতে তার পরিবারের সদস্যরা মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন।

এ নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখালেখি শুরু হয়। বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হলে আসপিয়াকে সরকারি জমিতে ঘর নির্মাণ ও চাকরির ব্যবস্থা করে দেওয়ার নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ খবর জানতে পেরে আপ্লুত হয়ে পড়েন আসপিয়া ও পরিবার। তার পাশে দাঁড়ানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

শুক্রবার (১০ ডিসেম্বর) বিকেল ৫টার দিকে আসপিয়া জাগো নিউজকে বলেন, আমার মতো অসহায় একটি মেয়ের জন্য প্রধানমন্ত্রী কথা বলেছেন। নির্দেশনা দিয়েছেন। এতে আমি আনন্দে অভিভূত। এ দিনটি আমার কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা কখনো শেষ হবে না। আমি প্রার্থনা করি, মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘ ও সুস্থ জীবন-যাপন করুন।

আসপিয়া আরও বলেন, বাবা মারা যাওয়ার পর আমাদের সংসারে অভাব অনটন ঘিরে ধরেছে। তাই একটি চাকরি আমার কাছে স্বপ্নের মতো। এখন মনে হচ্ছে সেই স্বপ্ন বাস্তবে রূপ নিচ্ছে। কনস্টেবল পদে চাকরি হলে নিষ্ঠার সঙ্গে অর্পিত দায়িত্ব পালন করবেন বলে জানান। এজন্য তিনি সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আসপিয়ার বিষয়টি জানতে পেরে সরকারি জমিতে ঘর নির্মাণ ও চাকরির ব্যবস্থা করে দিতে নির্দেশ দেন। নির্দেশনা পেয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলো এরই মধ্যে নানা উদ্যোগ নিয়েছে।

নির্দেশনা পেয়ে বরিশাল জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার আসপিয়ার জন্য ঘর নির্মাণে হিজলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বকুল চন্দ্র কবিরাজকে সরকারি জমি খুঁজতে বলেছেন।

বরিশাল জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে  বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া শুক্রবার সকালে ফোন দেন। তিনি বলেন, আসপিয়ার বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টিগোচর হয়েছে। আসপিয়া যাতে কনস্টেবল পদে চাকরি পেতে পারে সেজন্য সরকারি জমিতে ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

জেলা প্রশাসক আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা পেয়ে আসপিয়ার জন্য জমির স্থান নির্ধারণ করতে হিজলার ইউএনওকে বলা হয়েছে। আশা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যে আসপিয়ার জন্য ঘর নির্মাণ সম্ভব হবে।

জানতে চাইলে হিজলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বকুল চন্দ্র কবিরাজ বলেন, আসপিয়ার জন্য ঘর নির্মাণে বিকেলে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় খাসজমি ঘুরে দেখেছি। এ সময় আসপিয়া সঙ্গে ছিলেন। উপজেলার বড়জালিয়া ইউনিয়নে কয়েক শতাংশ জমি পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে সেখানে ঘর নির্মাণের সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে বিষয়টি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। জেলা প্রশাসকের মতামত পেলে কাজ শুরু হবে।

বরিশাল জেলা পুলিশে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদে নিয়োগ কমিটির সভাপতি জেলা পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন বলেন, পুলিশ কনস্টেবল পদে আসপিয়ার নিয়োগ বাতিল করা হয়নি। নিয়োগ আবেদনে তার স্থায়ী ঠিকানা ভুল উল্লেখ ছিল। বিষয়টি ভেরিফিকেশনে উঠে আসে। তবে তার চাকরি হবে না, এটা কখনো বলা হয়নি। আসপিয়া যেন এ কারণে নিয়োগবঞ্চিত না হন, সেজন্য নিয়মের মধ্যে থেকে করণীয় সম্পর্কে ভাবা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *