ঢাকা, সোমবার ২৭ মে ২০২৪, ০৩:৫৫ পূর্বাহ্ন
পেকুয়া থানার ওসি শেখ মোঃ আলীর উখিয়ায় বদলীর খবরে পেকুয়াবাসীর নিরব কান্না
ডেস্ক রিপোর্ট ::

পেকুয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলীকে উখিয়া থানায় বদলী করা হয়েছে খবরে পেকুয়ার মানুষ ব্যথিত হয়েছে। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এ নিয়ে অনেকেই মন্তব্য দিয়েছেন। তারা বলছেন এতো কম সময়ের মধ্যে পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে বদলি করা খুবই দুঃখজনক কেননা ওনার মতো দায়িত্বশীল ও সৎ ন্যায়পরায়ণ অফিসার খুব কমই পাওয়া যায় বলে মন্তব্য করেন। আবার কেউ কেউ বলছেন শেখ মোহাম্মদ আলীর মতো ওসি সব জায়গায় থাকলে দেশে কোন মাদক ব্যবসা অন্যায় দুর্নীতি থাকবেনা৷ জানা যায়, গত বছরের অক্টোবর মাসের ১২ তারিখ ওসি ডিবি কক্সবাজার থেকে পেকুয়া থানায় যোগ দেন মোহাম্মদ আলী। যোগ দিয়েই তিনি মাদক কারবারীদের দফায় দফায় অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে আইনের আওতায় আনেন। তিনি থানার নামে কথিত ক্যাশিয়ার প্রথা সমূলে নির্মূল করেন। গাড়ির নামে চাদাবাজি বন্ধে জোরালো পদক্ষেপ নেন। পরপরই ইউপি নির্বাচন আসে পেকুয়ার ৬টি ইউনিয়নে তিনি প্রায় সকল ইউনিয়নে সহিংসতা বিহীন নির্বাচন উপহার দেন যা নিয়ে তিনি পেকুয়ার মানুষের কাছে সমাদৃত। তিনি পেকুয়া বাশখালী হয়ে যাওয়া ইয়াবার সবচেয়ে বড় চালান ধরে দোষীদের আইনের আওতায় আনেন। যা পেকুয়ার পথ দিয়ে যাওয়া সবচেয়ে মাদকের বড় চালান। তার সবচেয়ে বহুল প্রশংসিত কাজ হলো থানা কম্পাউন্ড শতভাগ দালাল মুক্ত করন সাধারণ সেবা প্রত্যাশি সরাসরি ওসির সাথে কথা বলার সুযোগ। এই ছাড়াও তিনি মন্দিরে হামলার ঘটনায় বিশৃঙ্খলা শক্ত হাতে দমন করেন৷ হামলাকারীদের আইনের আওতায় আনেন৷ ৮মাসের মাথায় পেকুয়া একটি অন্যতম শান্তির জায়গায় পরিনত হয়। তিনি গত ৮মাস দায়িত্ব পালনে সবসময় চেষ্টা করেছেন মানুষকে পুলিশের সেবা প্রত্যাশি করতে। মানুষ যেন কোন ভয় ছাড়া পুলিশের সেবা গ্রহণ করতে পারে আর অপরাধীরা যেন অপরাধ ছেড়ে দেয়। তিনি কখনোই অপরাধীদের ছাড় দেননি। এই ওসির বদলির খবরে তাই ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে, মগনামা থেকে আসা শফি আলম নামের একজন বলেন, গত ৮মাস ওসি যেভাবে পেকুয়াকে রেখেছেন তা সত্যিই প্রশংসনীয়। তিনি আরো বলেন,ওনার মতো সবাই সৎ হলে আমাদের দেশটি আরো বদলে যাবে। পেকুয়ার বাসিন্দা হোছাইন নামের আরেকজন বলেন, থানায় গিয়েছিলাম একটি জিডি করতে কোন টাকা ছাড়াই জিডি করেছি দেখে মনে হলো পুলিশ সত্যিই জনগণের বন্ধু। এই ছাড়াও স্থানীয়রা ওসির প্রশংসা করছেন আবার তার চলে যাওয়াকে মেনে নিতে পারছেন না।

এ ব্যপারে সদ্য বিদায়ী ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, মানুষের ভালোবাসা দোয়া ছাড়া আর কিছুই কাজে আসবেনা। আমি চেষ্টা করি রাষ্ট্রের দেয়া দায়িত্ব যেন নিষ্ঠার সাথে অক্ষরে অক্ষরে পালন করি৷ তিনি আরো বলেন, পেকুয়ার মানুষ খুব ভালো আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় খুব বেশি সহযোগিতা পেয়েছি। তিনি সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি বলেন, এমন স্বপ্ন দেখি আমাদের দেশ একদিন একশত ভাগ মাদক মুক্ত হবে অপরাধ মুক্ত হবে আমাদের নতুন প্রজন্ম সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দেশের জন্য কাজ করবে।

উল্লেখ তিনি ডিবির ওসি হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময়ও কক্সবাজারে সবচেয়ে মাদকের বড় চালান ধরেও মাদক কারবারিদের আইনের আওতায় এনে সারা দেশে প্রশংসিত হয়েছিলেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *