ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০২৪, ০১:০০ পূর্বাহ্ন
জুয়া খেললে ১০ হাজার টাকা জরিমানা, ইউপি চেয়ারম্যানের নোটিশ
ডেস্ক রিপোর্ট ::

বরিশাল সদর উপজেলার চরমোনাই ইউনিয়নে লুডু, তাস বা ক্যারম বোর্ডের মাধ্যমে জুয়া খেলারত অবস্থায় কাউকে পাওয়া গেলে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করার ঘোষণা দিয়ে নোটিশ সাঁটানো হয়েছে।

নোটিশে চরমোনাই ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও চরমোনাই পিরের ছোট ভাই মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ জিয়াউল করিমের সই রয়েছে। নোটিশ নিয়ে বেশ আলোচনা হচ্ছে।

শনিবার (১২ মার্চ) রাতে ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে নোটিশটি সাঁটিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে, ইউনিয়নের কোনো দোকান বা স্থানে বসে স্মার্টফোন কিংবা লুডুর কোর্টের মাধ্যমে লুডু, তাস ও ক্যারম বোর্ডের মাধ্যমে জুয়া খেলা কিংবা মাদক সেবনরত অবস্থায় কাউকে পাওয়া গেলে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করাসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাশাপাশি যে দোকানে খেলা অবস্থায় পাওয়া যাবে সেই দোকানও অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে চরমোনাই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ জিয়াউল করিম জাগো নিউজকে বলেন, ‘ইউনিয়নের যুবসমাজের মধ্যে একটি অংশ তাস, লুডু, ক্যারম বোর্ড ও অনলাইনে জুয়া খেলায় আসক্ত হয়ে পড়ছে। কিছু কিছু যুবক অপরাধে জড়িয়ে পড়ছেন। তারা দল বাধছেন এবং একদল অন্যদলের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়াচ্ছেন। সিনিয়র-জুনিয়রসহ নানা তুচ্ছ কারণে তারা মারামারি, সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ছেন। কেউ কেউ মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছ্নে। অভিভাবকদের কাছ থেকে এ ধরনের অভিযোগ পাওয়ার পর এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

তবে ইউপি চেয়ারম্যানের এ ধরনের নোটিশে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকে। বরিশাল সচেতন নাগরিক কমিটির (সনাক) সভাপতি শাহ সাজেদা জাগো নিউজকে বলেন, ‘দেশে আইন আছে, আদালত আছে। আইন অনুযায়ী আদালত ব্যবস্থা নিবেন। একজন চেয়ারম্যান আলাদাভাবে আইন তৈরি করে শাস্তি বা জরিমানা করতে পারেন না।’

এ বিষয়ে বরিশাল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মনিরুজ্জামান বলেন, ‘বিষয়টি জানা নেই। তবে এ ধরনের কোনো নোটিশ সাঁটানো হয়ে থাকলে ঠিক হয়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘মাদক ও জুয়া প্রতিরোধে দেশে আইন রয়েছে। তিনি (চেয়ারম্যান) আইনের বিধিবিধান জানিয়ে জনগণকে সচেতন করতে পারেন। এছাড়া স্থানীয় সরকার আইনে একজন ইউপি চেয়ারম্যানের দায়িত্ব ও কর্তব্য সুস্পষ্টভাবে উল্লেখ রয়েছে। আইনে এ ধরনের নোটিশ জারি করার এখতিয়ার তাকে দেওয়া হয়নি।’

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) আলী আশরাফ ভূঁঞা বলেন, এ ধরনের নোটিশের বিষয়টি তিনি জানেন না। খোঁজ নিয়ে জেনে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *