ঢাকা, বুধবার ১৯ জুন ২০২৪, ০৫:৫৯ অপরাহ্ন
জামিন খালাস অস্ত্রের লাইসেন্সসহ সব কাজে ‘পারদর্শী’ রাশেদ!
ডেস্ক রিপোর্ট ::

অস্ত্রের লাইসেন্স, আদালতে আসামির জামিন-খালাসসহ যাবতীয় কাজ করিয়ে দেওয়া এবং সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশনের ভুয়া বেঞ্চ অফিসারকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মো. রাশেদুল ইসলাম নামের ওই ব্যক্তিকে বুধবার রাজধানীর যাত্রাবাড়ির মীরহাজিরবাগ এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

এ সময় তার কাছ থেকে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশনের বেঞ্চ অফিসার পরিচয়ে ভিজিটিং কার্ড, একেএম জহিরুল হকের নামে দুই লাখ টাকা দেওয়ার ওয়ান ব্যাংকের একটি চেক ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির অতিরিক্ত ডিআইজি (ঢাকা মেট্রো) ইমাম হোসেন বলেন, রাশেদুল ইসলাম নামের ৩৫ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি নিজেকে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশনের বেঞ্চ অফিসার পরিচয় দিতেন।

ইমাম হোসেন বলেন, রাশেদুল ইসলাম নিজ নামে বেঞ্চ অফিসারের ভিজিটিং কার্ড ছাপিয়ে যাত্রাবাড়ির মীরহাজিরবাগে অফিস ভাড়া করে দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে আসছেন। তিনি কখনো কখনো নিজেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্র আবার কখনো কখনো খুলনা ল’ কলেজের সাবেক ভিপি ছিলেন বলে পরিচয় দিয়ে এলাকায় প্রভাব বিস্তার করতেন।

‘বেঞ্চ অফিসার হিসেবে সরকারি উচ্চপর্যায়ের বিভিন্ন অফিসারের সঙ্গে তার হাত রয়েছে মর্মে মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে গোয়েন্দা সংস্থাসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি, আসামিদের জামিন/খালাস করানো বা কোর্টের যাবতীয় কাজে পারদর্শী হিসেবে বিভিন্ন লোকজনের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নেন তিনি।’

ইমাম হোসেন বলেন, ‘এছাড়া অস্ত্রের লাইসেন্স করিয়ে দেওয়া, পাওনাদারের টাকা উদ্ধার করে দেওয়াসহ নানা কাজের বিনিময়ে কমিশন হিসেবে টাকা নিতেন এ প্রতারক।’

‘সিআইডির অনুসন্ধানে এ পর্যন্ত আটজন ভুক্তভোগীর কাছ থেকে বিভিন্ন উদ্দেশে প্রতারণা করে প্রায় ৩৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে। বাকপটু রাশেদুল বিভিন্ন অফিসের উচ্চপদস্থ অফিসারের সঙ্গে সু-সম্পর্ক আছে প্রচার করে প্রতারণা করে আসছিলেন। তার কাছ থেকে জব্দ করা মোবাইলে ভুয়া কর্মকর্তা পরিচয়ে বিভিন্ন কথাবার্তার অনেক অডিও রেকর্ড পাওয়া গেছে।’

তার বিরুদ্ধে যাত্রাবাড়ী থানায় মামলা দায়ে করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সিআইডি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *