ঢাকা, শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৪১ অপরাহ্ন
চাঁদাবাজির মামলায় ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে, দল থেকেও বহিস্কার
ডেস্ক রিপোর্ট ::

গাজীপুরের টঙ্গীতে চাঁদাবাজির মামলায় রিপন হোসেন নামের এক ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেপ্তারের পর কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত রিপন (২৮), গাজীপুর মহানগরের ৫৫নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নামাবাজার এলাকায় মাছিমপুর গ্রামের বাসিন্দা সিরাজুল ইসলামের ছেলে।

রোববার রাতে রিপনকে গ্রেপ্তার ও কারাগারে পাঠানোর পর সন্ধ্যায় দল থেকেও বহিস্কার করা হয়েছে।

 

টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ শাহ্ আলম জানান, গত রোববার দুপুরে ছাত্রলীগ নেতা রিপনসহ অজ্ঞাত তিনজনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগে মামলা দায়ের করেন স্থানীয় হামিম গ্রুপের প্রতিষ্ঠান ক্রিয়েটিভ কালেকশন লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক কামাল হোসেন জনি। এই মামলায় রোববার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরদিন সোমবার দুপুরে তাকে গাজীপুর মহানগর মূখ্য হাকিম আদালতে তোলা হলে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। রিপনের বিরুদ্ধে মাদক, চুরি-ছিনতাই, অপহরণসহ বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে।

মামলার বাদী কামাল হোসেন জনি বলেন, গত ৪ ডিসেম্বর সকালে একটি মোবাইল নাম্বার থেকে রিপন আমার মোবাইল নম্বরে ফোন করে বলে এলাকায় একটি অনুষ্ঠানের জন্য অনুদান দিতে হবে এবং দুপুরের খাবার বিরতির পর দেখা করবে বলে জানায় সে। এদিন দুপুরে আমি কারখানার প্রধান ফটকের সামনে বের হলে আমার সাথে তার দেখা হয়। তখন রিপন আবারো জানায়, এলাকার বন্ধু-বান্ধব, ভাই-ব্রাদার নিয়ে একটি অনুষ্ঠান করবে। এজন্য তাকে দুই লাখ টাকা চাঁদা দিতে হবে। এসময় তার সঙ্গে থাকা অন্যরাও দুই লাখ টাকা চাইতে থাকে। পরদিন রিপন একই নাম্বার থেকে আমার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে জানায়, তাকে দুইদিনের মধ্যে দুই লাখ টাকা না দিলে আমাকে হত্যার পর লাশ গুম করে ফেলবে।

এদিকে গ্রেপ্তারের পর সোমবার সন্ধ্যায় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ছাত্রলীগের পদ থেকে রিপন হোসেনকে সাময়িক অব্যাহতি দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ৫৫নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি দ্বীন মোহাম্মদ নিরব।

 

তিনি বলেন, সংগঠনের শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে থানা ছাত্রলীগের নির্দেশে রিপন হোসেনকে তার পদ থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। ছাত্রলীগের নাম ব্যবহার করে কাউকে অপকর্ম করতে দেওয়া হবেনা বলেও জানানো হয় সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *