ঢাকা, বুধবার ১৯ জুন ২০২৪, ০৮:৫০ অপরাহ্ন
উখিয়ার কোটবাজারে সন্ত্রাসী হামলায় দুই সাংবাদিক আহত
নিজস্ব প্রতিবেদক ::

কক্সবাজারের উখিয়ার কোটবাজারে সন্ত্রাসী হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন স্থানীয় দুই সাংবাদিক জসিম আজাদ ও শরীফ আজাদ। বর্তমানে তারা উখিয়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

বুধবার দিবাগত রাত আনুমানিক এগারোটার দিকে কোটবাজার স্টেশনে এই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, রত্নাপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল হুদার পুত্র তাহসিনের নেতৃত্বে দুই সহোদর সাংবাদিকদের উপর দেশীয় অস্ত্রধারী ৩০/৩২ জন যুবক অতর্কিত হামলা চালায়। অই যুবকদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে রক্তাক্ত হন শরীফ আজাদ ও জসিম আজাদ। হামলার সময় তাদের শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করা হয়, ছিড়ে ফেলা হয় পড়নের কাপড়।

আহত সাংবাদিক শরীফ আজাদ বলেন, ” আমি ও আমার ভাই আমাদের অফিসের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলাম। অতর্কিত অবস্থায় চেয়ারম্যান পুত্র ও তার সাথে থাকা সাবেক মেম্বার নুরুল হক মনুর দুই পুত্র সহ ৭/৮ জন চিহ্নিত সন্ত্রাসী আমাদের উপর হামলা করে, প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে অবরুদ্ধ করে রাখে। ”

শরীফ বলেন, ” স্থানীয় জনগণ মৃত্যুর মুখ থেকে আমাদের কে উদ্ধার করে, আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।”

এই ঘটনার পরপর সাংবাদিকদের উপর হামলার ঘটনায় সাধারণ জনতা রাস্তায় নেমে এসে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ ও সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

ঘটনার তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় আনতে কাজ করছে পুলিশ।

উখিয়া থানা পুলিশের একটি সুত্র জানিয়েছে, এঘটনায় অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুজন কে আটক করার পাশাপাশি উদ্ধার করা হয়েছে ধারালো অস্ত্র।

এদিকে, সাংবাদিকের উপর হামলার ঘটনায় কক্সবাজার শহর থেকে রিপোর্টাস ইউনিটি কক্সবাজারে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে সাংবাদিকদের সংগঠনটির একটি প্রতিনিধি দল তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন।

রিপোর্টার্স ইউনিটি কক্সবাজারের সভাপতি এইচ এম নজরুল ইসলাম বলেন, ” এঘটনায় আমরা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। অনতিবিলম্বে হামলায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনতে হবে। ‘

প্রসঙ্গত, শরীফ আজাদ রিপোর্টাস ইউনিটি উখিয়ার সভাপতি ও অনলাইন গণমাধ্যম চট্টগ্রাম ২৪ এর সম্পাদক ও প্রকাশক এবং তার ভাই জসিম আজাদ দৈনিক ভোরের কাগজের উখিয়া প্রতিনিধি ও উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *