ঢাকা, শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০৮ অপরাহ্ন
উখিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হচ্ছেন সোহেল চৌধুরী
নিজস্ব প্রতিবেদক ::

আসন্ন উখিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হচ্ছেন তরুণ জনপ্রিয় নেতা সোহেল চৌধুরী। এ লক্ষ্যে তিনি বিভিন্ন সমাজ সেবা মূলক কাজ করে যাচ্ছেন। বিভিন্ন সভা, সমাবেশ, বিয়ে, এতিমখানাসহ বিভিন্ন স্থানে তার সবর উপস্থিতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে সমানতালে । সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষের পাশে থাকার পাশাপাশি এলাকার গরিব জনগোষ্ঠীকে তিনি সাহায্য সহযোগিতা করা যাচ্ছেন।

উখিয়া উপজেলার রত্নাপালং ইউনিয়নের প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা ঈছকান্দর চৌধুরীর ছেলে সোহেল চৌধুরী বিগত কয়েক বছর ধরে রত্নাপালং ইউনিয়নসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে মানবিক সেবামুলক কাজ করে এলাকাবাসীর দৃষ্টি কেড়েছেন। তিনি এলাকার গরীব জনগোষ্ঠীর অনুষ্ঠানগুলোতে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে রত্নাপালং ইউনিয়নের আনাচে-কানাচে মানবিক নেতা হিসেবে স্বীকৃতি অর্জন করেছেন।


গরিব জনগোষ্ঠী অন্যান্য নেতাদের যেখানে খুঁজে খুঁজে ক্লান্ত সেখানে গরীব মানুষের পাশে নিজে গিয়েই হাজির হন সোহেল চৌধুরী। এটাই তার কারিশমা। তাই রত্নাপালং ইউনিয়নে চেয়ারম্যান মেম্বারদের ছাপিয়ে সোহেল চৌধুরীকে নিয়েই মাতামাতি হচ্ছে বেশি। তাই তার সমর্থকদের প্রত্যাশা মানবিক নেতা সোহেল চৌধুরীই পারেন উপজেলাবাসীর মুখে হাসি ফোটাতে।

রত্নাপালং ইউনিয়নের বেশ কয়েকজন মানুষের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, তারা আসন্ন উখিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে সোহেল চৌধুরীকেই প্রার্থী হিসেবে পেতে চান।

কারণ হিসেবে তারা বলেন, চেয়ারম্যান মেম্বারদের সাথে কথা বলা যায় না। এক্ষেত্রে সোহেল চৌধুরী ব্যতিক্রম । তার ব্যক্তি ইমেজ রয়েছে। এছাড়া সাধারণ মানুষের সাথে মেশার অসম্ভব ক্ষমতা রয়েছে তার। গরিব দুখী মেহনতি মানুষের পাশে থেকে সোহেল চৌধুরী ইতিমধ্যে এলাকার মানুষের আস্থা অর্জন করে নিয়েছেন।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে সোহেল চৌধুরী বলেন, তিনি নেতা হিসেবে নয়  মানুষের খাদেম হিসেবে কাজ করে যেতে চান। নেতৃত্বে থাকেন বা না থাকেন মানুষের সেবা করে যেতে চান। গরিব দুঃখী মেহনতি মানুষের পাশে থাকতে চান। চেয়ারম্যান মেম্বার না হয়েও যে কাজ করা যায় তা দেখিয়ে দিতে চান।
তিনি বলেন, আমার লক্ষ্য হচ্ছে সুখে দুঃখে মানুষের পাশে থাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *