ঢাকা, বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪, ০৩:১৯ অপরাহ্ন
উখিয়ায় মাদক কারবারিরাও ব্যবহার করছে সাংবাদিকতার সাইনবোর্ড !
এম ফেরদৌস উখিয়া ::

উখিয়ার বালুখালী এলাকার তারেক রহমান নামে এক মাদক কারবারী সাংবাদিক পরিচয়ে তার ব্যবহারিত মোটরসাইকেল ও বিলাস বহুল কার গাড়িতে প্রেস লেখা হাকিয়ে অবাধে রোহিঙ্গা নারী ধর্ষণ ও মাদকপাচার করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা যায়, নামধারী কথিত এই ভুয়া সাংবাদিক বালুখালীর নুরু মাস্টরের ছেলে তারেকুর রহমান (২৮)। তার স্থায়ী ঠিকানা বালুখালী হলেও বর্তমানে তারা স্বপরিবার নিয়ে ইয়াবার সর্গরাজ্য টেকনাফ উপজেলার কাটাখালীতে বসবাস করে। তার অনেক আত্মীয় স্বজনরা মাদক নিয়ে আটক হলেও সে কৌশলে সাংবাদিকদের সাইনবোর্ড লাগিয়ে নিজেকে রক্ষা করে যাচ্ছে। কিছুদিন আগেও তার আপন বোন আজুপা ইয়াসমিন টেকনাফ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণের হাতে ইয়াবা নিয়ে আটক হয়।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, তারেকের দৃশ্যমান কোন ব্যবসা নেই কিন্তু সে বিলাবহুল মোটরসাইকেল ও কার গাড়িতে সাংবাদিক / প্রেস হাকিয়ে নিয়মিত এদিক ওদিক ঘুরাপেরা করে। তার এত টাকার আইয়ের উৎস কি এ নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যাক্তি জানায়, সে নিজেকে অনেক বড় সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে তার ব্যবহারিত গাড়িতে প্রেস লাগিয়ে প্রতিনিয়ত মাদক পাচার করে। এবং তার গাড়ি করে রোহিঙ্গা নারী নিয়ে হোটেলে ফুস্কি-নষ্টতে ব্যাস্ত থাকে। নারী কেলোঙ্গরী এই তারেকের হাতে অনেক স্থানীয় নারীও ধর্ষীত হয়েছে।

এদিকে র‍্যাব-পুলিশ-বিজিবি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহীনি মাদকের বিরোদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অব্যাহত থাকলেও কথিত সাংবাদিকের সাইনবোর্ড লাগিয়ে তারেক রহমান প্রশসানের সাথে লোকোচুরি খেলে তার অবৈধ কালো বাজারির ব্যবসা গুলো চালিয়ে যাচ্ছে।

স্থানীয় সচেতন মহন মন্তব্য করেন, গোয়েন্দা সংস্থার কঠোর নজরদারিতে তারেকের সকল অপকর্ম উঠে আসবে। তাই প্রশাসন ও গোয়েন্দা সংস্থার প্রতি জোর দাবি জানান তারা যাতে তাকে কঠোর নজরদারিতে রাখা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *