ঢাকা, শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৩:৪৭ অপরাহ্ন
লিটন খুব ভালো মানের ফিল্ডার : মুশফিক
স্পোটস ডেস্ক ::

বিশ্বকাপের প্রথম পর্বের মতো মূল পর্বের শুরুটাও হার দিয়ে হলো বাংলাদেশে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বড় সংগ্রহ গড়েও ফিল্ডিংয়ের কিছু ভুলে ম্যাচ হাতছাড়া হয়েছে টাইগারদের। এই ম্যাচে প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের অধিনায়কত্বও। দুই ক্যাচ মিসে প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানকে জীবন দিয়ে ম্যাচ লঙ্কানদের দিকে হেলিয়ে দিয়ে সমালোচনায় বিদ্ধ লিটন দাসও। এতো কিছুর পরও লিটনকে দায় দিতে চান না মুশফিকুর রহিম। তার মতে, লিটন খুব ভালো মানের ফিল্ডার। ওই সময়টা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। যার কারণে ক্যাচ মিস হয়েছে লিটনের।

রোববার ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে মুশফিক বলেন, ‘আসলে দায় দেয়ার কিছু নেই। যত রানই করি না কেন, ছোটখাট কিছু ভুল থাকেই আবার কিছু ইতিবাচক দিকও থাকে। আমাদের আজ যে ভুল হয়েছে সেটা হল লিটনের দুটো ক্যাচ। সে কিন্তু খুব ভাল মানের ফিল্ডার। আমার থেকে হলে কথা ছিল, লিটন আমার থেকে ভালো ফিল্ডার।’

ফিল্ডার হিসেবে নিজেকে লিটনের চেয়ে খানিকটা দুর্বল মনে করেন মুশফিক। যার কারণে ওই সময়টা তিনি হলেও হয়তো এমন হতে পারতো এই ইঙ্গিত দিয়ে তিনি বলেন,‘ওই সময়টাও খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ওদের দুই লেফটি দারুন ব্যাট করছিল। ওই সময় আমাদের দুটো উইকেট পড়ে গেলে ম্যাচ ঘুরেও যেতে পারতো।’

‘সাধারণত আমরা আজকের উইকেটটা বেশ ভালো ছিল। এই উইকেটে রান কম দেখেছি কিন্তু আজ খুব ভালো ছিল। আমরা জানতাম যে ১৭০ হয়ত জয়ের স্কোর না, কিন্তু আমরা যদি সুযোগ কাজে লাগাতে পারি তাহলে জয় সম্ভব। ওরা ৬ ওভার খুবই ভালো পাওয়ার প্লে নিয়েছে। সাকিব আমাদের মোমেন্টাম এনে দিয়েছে। কিন্তু ওদের দুই সেট ব্যাটসম্যান সব বদলে দেয়। ওভারঅল বলব এটা দায় দেয়ার কিছু নেই, কিছু ভুল হয়েছে সেজন্য ম্যাচটা জিততে পারি নাই’, যোগ করেন তিনি।

ম্যাচ হাতছাড়া হয়ে যাচ্চে এমন মুহূর্তেও সাকিব আল হাসানকে বোলিংয়ে না আনার কারণ কি, এমন প্রশ্নে মুশফিক বলেন, ‘উইকেট খুব ভালো ছিল। বাঁ হাতি ব্যাটসম্যানরা সেট ছিল। ইনিংসের শেষ দিকেই তো গুরুত্ব অংশগুলো হয়, তখন আমরা চেয়েছিলাম সাকিবকে আনব।

কারণ শেষ দিকেই তো কঠিন সময়টা আসে। আর সাকিব চ্যাম্পিয়ন বোলার, সে এই সব মুহুর্তের চাপ সইতে পারবে। আমরা এটা ভেবেছিলাম, এই হারের জন্য সাকিবকে বোলিংয়ে না আনাটা কারণ না। এখানে আমরা সঠিক সময়ে সুযোগ মিস করেছি এটাই কারণ।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *