ঢাকা, রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:৩৩ পূর্বাহ্ন
কুতুপালং বাজারে ১৮ ব্যক্তির খতিয়ানভুক্ত জায়গা দখলে নিতে মরিয়া দুর্বৃত্তরা
গফুর মিয়া চৌধুরী,উখিয়া ::

উখিয়া উপজেলার কুতুপালং কাঁচা বাজারের পাশে প্রধান সড়কের পুর্ব পাশে সরকারী বন্দোবস্তিকৃত দলিল মুলে খতিয়ানভুক্ত ২০ জন ব্যক্তির জায়গা জোর জবরদস্তির মাধ্যমে একটি ভুমিদস্যুচক্র দখলে নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে বলে জানা গেছে।

তবে খতিয়ানভুক্ত এই জমির মালীকানা নিয়ে পরস্পর বিরোধী বক্তব্য পাওয়া গেছে। জমির মালীক স্হানীয় ১৮ ব্যক্তি দাবী করেন তাঁরা এই জায়গার বৈধ মালীক। সরকারের কক্সবাজারের উখিয়া সহকারী কমিশনার(ভুমি) সংশ্লিষ্ট আইনের বিধি মতে, ১লা বৈশাখ-১৪২৫ বাংলা সন হতে অস্হায়ী/ স্বল্প মেয়াদী লীজ প্রদান করেন।
যার বিএস খতিয়ান নম্বর-১, দাগ নম্বর-৭৮৬৬/১২ এর আন্দর – ০,০০৫০একর।
জমির প্রকৃত মালীকগণ জানান, প্রশাসনের নির্দেশনামতে,তাঁদের জায়গায় ইতিমধ্যে দোকানঘর তৈরী করার পর স্হানীয় মৃত ফকির আহামদের পুত্র যথাক্রমে মাহমুদুল হক,হামিদুল হক, শাহ জাহান ও মুজিবুর হক দুর্লোভের ভসীভুত হয়ে আমাদের সত্বদখলী বৈধ জায়গার স্হাপনা ভাংচুর করে।
জবর দখলকারীরা গত ২২ জুন ভোর সকালে মহিলাসহ লাঠিসোঠা নিয়ে বেআইনীভাবে রাতে আঁধারে জায়গার উপর বিদ্যমান স্হাপনা ভাংচুর করে লুটপাট চালায়।
এদিকে জবর দখলে জড়িত দুর্বত্তরা উল্টো তাদের বসত ভিটা ও ঘরবাড়ি ভাংচুর করেছে বলে অপপ্রচার চালিয়ে জমির প্রকৃত মালীক ও সমাজের স্বনামধন্য ব্যক্তিবর্গদের মান ইজ্জ্বত ক্ষুন্ন করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে বলে এলাকাবাসীরা জানিয়েছেন।
এ ঘটনার ব্যাপারে জমির মালীকগণের পক্ষ থেকে জবরদখলের চেষ্টা ও হামলাকারী দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে মোহাম্মদ রুবেল বাদী হয়ে উখিয়া থানায় এজাহার করা দায়ের করছেন।
এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মামুন এ প্রতিবেদককে জানিয়েছেন বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্হা নিচ্ছি। তিঁনি আরো বলেন, দলিল যাঁর জমি তাঁর। জমিজমার বিষয়ে সরকারের কঠোর নির্দেশনা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *